সর্বশেষ:

করোনা মোকাবিলায় নওগাঁ জেলার অসহায় আনসার-ভিডিপি সদস্যদের মানবিক সহায়তা »

করোনা মোকাবিলায় নওগাঁ জেলার অসহায় আনসার-ভিডিপি সদস্যদের মানবিক সহায়তা
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সমগ্র বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও মহামারী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) ভয়ংকর সংকট তৈরি করেছে দেশ জুড়ে এ করোনা ভাইরাসে জনজীবন আজ মারাত্মকভাবে বিপর্যস্ত। ঠিক তখনই গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অতীব জরুরি ভিত্তিতে দ্রুততার সঙ্গে বিশেষ কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

এ লক্ষে মহাপরিচালক, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মেজর জেলারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ, এনডিসি, পিএসসি, জি, এর নির্দেশনায় মানবতবোধে জাগ্রত হয়ে বাহিনীর প্রান্তিক পর্যায়ে প্রায় ৬১ লক্ষ সদস্যের মধ্যে স্বেচ্ছাসেবী ভিডিপি সদস্য-সদস্যাদের মাঝে পর্যায়ক্রমে সারাদেশে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেছে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী তারই পরিপ্রেক্ষিতে আজ রবিবার (৩ মে) রাজশাহী রেঞ্জের নওগাঁ জেলার ১১ টি উপজেলায় ৯৯ টি ইউনিয়নে ৩ হাজার ৩ শত স্বেচ্ছাসেবী ভিডিপি সদস্য -সদস্যাদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কাযর্ক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে।

ত্রাণ সামগ্রী বিতারণ কাযর্ক্রম সার্বিক তত্ত্বাবধান করবেন জনাব মোহাঃ ফকরুল ইসলাম, রেঞ্জ পরিচালক, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী, রাজশাহী। ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কাযর্ক্রম উদ্বোধন করেন জনাব মোঃ জহুরুল ইসলাম, জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী, নওগাঁ। আরো উপস্থিত ছিলেন জনাব মুহাঃ আব্দুল কাদীর, উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা সদর, জনাব মোছা: রওশান আরা বেগম, উপজেলা আনসার ও ভিডিপি প্রশিক্ষিকা, জনাব মোঃ মামুনুর রশিদ, উপজেলা আনসার ও ভিডিপি প্রশিক্ষক সদর এবং নওগাঁ জেলার অন্যান্য কর্মকর্তা–কর্মচারীগণ ও বাহিনীর অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী সরকারের যথাযথ নির্দেশনা মোতাবেক মহামারী এই করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় দুর্যোগের শুরু থেকেই বিভিন্ন কার্যক্রমে অনন্য ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। এই জটিল সংক্রামন রোগের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের পাশাপাশি মানবতার পক্ষে লড়াইয়েও বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী কাজ করে যাচ্ছে। শুরু থেকেই এই বাহিনী লিফলেট বিতরণ, ব্যানার প্রদর্শন, সামাজিক দূরুত্ব ও হোমকোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করন, মাস্ক বিতরণ, ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়াসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে এ বাহিনী।

এরই প্রেক্ষিতে এই কর্মসূচির মাধ্যমে প্রায় ৫ লক্ষ ৫০ হাজার মানুষের এক সপ্তাহের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দেশের ৬৪টি জেলার প্রতি উপজেলায় ৩০০ টি পরিবার হিসেবে ৪৯২ টি উপজেলায় মোট ১ লক্ষ ৪৭ হাজার ৬শত পরিবারে এক সপ্তাহের খাবার হিসেবে চাল, ডাল, তেল, আলু, পিয়াজ, সাবান ও মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম পর্যায়ক্রমে চালু করা হয়েছে। প্রতি পরিবারে গড়ে ৪ জন করে সদস্য হলে প্রায় ৬ লক্ষ মানুষ এক সপ্তাহের খাদ্য সহায়তার আওতায় আসবে। সময়ের কলম

নিউজটি পড়েছেন 657 জন

আর্কাইভস