সর্বশেষ:

ধুনটে ঈদের আগেই ভূমিহীনরা পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহারের বাড়ি »

ধুনটে ঈদের আগেই ভূমিহীনরা পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহারের বাড়ি
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

প্রতিবন্ধী রুপালী খাতুন (২৫)। স্বামী তাকে ছেড়ে দেওয়ায় থাকেন বাবার বাড়িতে। এক শিশু ছেলেকে নিয়ে বাবার বাড়িতে ঝুঁপড়ি ঘরেই বসবাস ছিল তার। হঠাৎ তিনি দুই শতক জমির ওপর পাকা বাড়ি পেয়ে বেজায় খুশি। রুপালী খাতুন বগুড়ার ধুনট উপজেলার পাকুড়িহাটা গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে। তার এক পা নেই। তাই স্বামীর ঘর সংসারও টেকেনি তার। তাই আশ্রয় নিয়েছিল দরিদ্র বাবার বাড়িতে।

এখন তিনি একটি বাড়ির মালিক হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের সেই স্বপ্নের বাড়ির তালা-চাবি হাতে পেতেই আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়েন প্রতিবন্ধী রুপালী খাতুন।

তবে শুধু রুপালী খাতুনই নয়, তার মতো প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেয়েছেন অসহায় বিধবা মিলি খাতুন (৭০), বিধবা আমেজা খাতুন (৬৫) সহ ৫৫ ভূমিহীন পরিবার।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে (১৩ মে) ধুনট সদর ইউনিয়নের মালোপাড়া গ্রামে সরকারি খাস জমিতে নির্মিত ৫৫টি পাকা বাড়ি লটারীর মাধ্যমে ভূমিহীনদের কাছে হস্তান্তর করেন ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সঞ্জয় কুমার মহন্ত।

এদিকে ঈদের আগে ভূমিহীনরা নতুন বাড়ি পেয়েই ধুয়ে-মুছে পরিস্কার করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। প্রতিটি বাড়িতে রয়েছে দুটি বেডরুম, একটি রান্নাঘর, একটি ল্যাটিন ও একটি বরান্দা। প্রতিটি বাড়িতেই থাকছে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। এছাড়া বাড়ির মালিকানা দলিলও পাচ্ছেন ভূমিহীনরা।

বেলকুচি গ্রামের বিধবা আমেজা খাতুন বলেন, স্বামীর মৃত্যু পর অন্যের জায়গায় ছোট ঝুঁপড়ি ঘরে বসবাস করছিলাম। কখনো কল্পনাও করতে পারেনি পাকা বাড়িতে ঘুমাতে পারব।

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সঞ্জয় কুমার মহন্ত জানান, প্রথম দফায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ভূমিহীনদের জন্য উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ১০১টি পাকা বাড়ি হস্তান্তর করা হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় আরো ১২০টি পাকা বাড়ি নির্মান সমাপ্ত হয়েছে। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন না হলেও ৫৫ টি বাড়ি ইতিমধ্যেই ভূমিহীদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পরই একযোগে সকল বাড়ি অনুুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে। এবিনিউজ

নিউজটি পড়েছেন 423 জন

আর্কাইভস