সর্বশেষ:

সন্তানসম্ভবা স্ত্রীকেও ঝাঁপসা দেখছেন ধুনটের রাকিব »

সন্তানসম্ভবা স্ত্রীকেও ঝাঁপসা দেখছেন ধুনটের রাকিব
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাকিব শেখের বয়স মাত্র ২৩ বছর। এ বয়সেই অন্ধকারে ভরে গেছে তার জীবন। এরই মধ্যে এক বছর হলো বিয়ে করেছেন। স্ত্রী চার মাসের সন্তানসম্ভবা। ঘরে সন্তান আসার খবরে খুশির জায়গায় কষ্টে ডুকরে ডুকরে কাঁদছেন রাকিব। কারণ সন্তানকে দুচোখ ভরে দেখা হবে না তার। ইতোমধ্যে বাম চোখের দৃষ্টি হারিয়েছেন রাকিব। এখন ভরসা শুধু ডান চোখ। সেটি দিয়েও নাকি এখন ঝাঁপসা দেখছেন তিনি। 

১০ বছর বয়সে বাবাকে হারিয়েছেন রাকিব। তিন ভাইয়ের মধ্যে বড় ভাই বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেছেন তখনই। এরপর থেকে ছোট ভাই ও মায়ের দায়িত্ব পড়েছে তার কাঁধে। রাকিবের বাড়ি বগুড়ার ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের বিশহরিগাছা গ্রামে। ওই গ্রামের মৃত সলিমুদ্দিন শেখের ছেলে তিনি।

৪ বছর হলো রাজধানীর মিরপুরের কালশী এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় থাকছেন রাকিব। আগে কাজ করতেন একটি ওয়েল্ডিং কারখানায়। এক বছর আগে সেখানে কাজ করা অবস্থায় ঝাঁলাইয়ের কাজ করার সময় আগুনের স্ফুরণ বাম চোখে ঢুকে যায় রাকিবের। অপারেশন করে সেটি বের করা হয়েছে। কিন্তু চোখের আলো চলে গেছে তার।

রাকিব বলেন, ৫ মাস হলো বাম চোখে কিছু দেখি না। শ্যামলীতে জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চোখ দেখিয়েছি। সেখানকার ডাক্তার জানিয়েছেন, চোখের লেন্স নষ্ট হয়ে গেছে। ৩৫/৪০ হাজার টাকা হলে নাকি লেন্স লাগানো যাবে। কিন্তু আমার বর্তমানে যে অবস্থা, তাতে এই ৩৫/৪০ হাজার টাকা কয়েক লাখ টাকার সমান। অনেক দিন হলো বাড়িতে মা ও ছোট ভাইকে সংসারের খরচ দিতে পারি না। জানি না তারা তিনবেলা খেতে পারছে কীনা? 

তিনি বলেন, বাম চোখে তো কিছু দেখি না। ডান চোখেও দেখছি পুরোপুরি ঝাঁপসা। আগে যে দোকানে কাজ করতাম সেখানে চাকরি নেই। কিছুদিন আগে দিনমজুরি করতাম। দুই চোখের সমস্যার কারণে এখন সেটিও করতে পারি না। রাতে শুয়ে থাকার সময় বাম চোখের প্রচণ্ড ব্যথা উঠে এবং চোখ দিয়ে পানি পড়ে।    

আকুতি জানিয়ে রাকিব বলেন, বাম চোখে দ্রুত লেন্স না লাগালে নাকি ডান চোখটিও নষ্ট হয়ে যাবে। তখন পুরোপুরি হয়তো অন্ধ হয়ে যাব। আমার সন্তান এখনও তার মায়ের পেটে। জানি না সন্তানের চেহারা দেখার সৌভাগ্য আমার হবে কীনা? আমি আমার সন্তানকে দেখতে চাই। তাকে জড়িয়ে ধরতে চাই। কোনো হৃদয়বান মানুষ যদি আমাকে সহযোগিতা করতো তাহলে এক চোখে হলেও দুনিয়ার আলো দেখতে পেতাম।

কোনো হৃদয়বান মানুষ রাকিবকে সহযোগিতা করতে চাইলে ০১৯৬৯২৩২৬২৪ নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে। ঢাকাপোষ্ট

নিউজটি পড়েছেন 1835 জন

আর্কাইভস