সর্বশেষ:

ধুনটে ২১ জীবিত ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে ভোগান্তিতে ফেলেছে নির্বাচন অফিস »

ধুনটে ২১ জীবিত ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে ভোগান্তিতে ফেলেছে নির্বাচন অফিস
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বগুড়ার ধুনট উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার ২১ জন ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়েছে নির্বাচন কমিশন ও ভোটার তালিকা থেকে নাম বাদ দিয়েছে। ভুক্তভোগীরা নাগরিক সুবিধা পেতে বিভিন্ন জনের কাছে ঘুরে বেড়াচ্ছে ও এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন ২১ জন জীবিত ব্যক্তি।

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) ধুনট উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এর ফলে ভোক্তা ভোগীরা ভোটাধিকার প্রয়োগ, সরকারি সুবিধার ভাতার টাকা উত্তোলন, ব্যাংক ঋণ ও করোনার টিকা রেজিস্ট্রেশন সহ নাগরিক সব সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

জানা গেছে, ভুক্তভোগীরা সংশ্লিষ্ট নির্বাচন অফিসে পুনরায় ভোটার তালিকার নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আবেদন করলেও এখনো প্রতিকার মিলছে না। তদন্তসাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা সহ দ্রুত পুনরায় ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

ধুনট উপজেলার মথুরাপুরের ভুক্তভোগী সুশীলা রানী হালদার বলেন, আমি এখনো জীবিত আছি। কিন্তু ভোটার তালিকায় আমাকে মৃত দেখানো হয়েছে। আমি গরীব মানুষ। বয়স্ক ভাতা পেতাম, তা দিয়ে ওষুধসহ অন্যান্য খরচ মেটাতাম। কিন্তু ভোটার তালিকায় মৃত হওয়ার কারণে সেটিও বেশ কিছুদিন ধরে পাচ্ছি না।

চরপাড়ার আয়নাল হক বলেন, আমি জীবিত থাকা অবস্থায় আমাকে মৃত ঘোষণা করে ভোটার তালিকা থেকে নাম বাদ দিয়েছে। করোনার কারণে খুবই অভাবে পড়েছি। এনজিও এবং ব্যাংকে ঋণের আবেদন করতে পারছি না। সবাই বলছে- আমি মৃত। খুব ঝামেলার মধ্যে পড়ে আছি।

এ বিষয়ে ধুনট উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মোকাদ্দেছ আলী বলেন বলেন,তথ্য সংগ্রহের সময় ভুলক্রমে এমনটি হয়ে থাকতে পারে। আমরা যাদের আবেদনপত্র তা সংশোধনের জন্য নির্বাচন কমিশনে পাঠিয়ে দিচ্ছি আশা করি শীঘ্রই বিষয়টি সংশোধন হয়ে যাবে। ক্রাইমনিউজটিভি

নিউজটি পড়েছেন 250 জন

আর্কাইভস