সর্বশেষ:

ধুনটে আ.লীগ নেতাকে বহিষ্কারের গুঞ্জনে লাঠি মিছিল, পুলিশ মোতায়েন »

ধুনটে আ.লীগ নেতাকে বহিষ্কারের গুঞ্জনে লাঠি মিছিল, পুলিশ মোতায়েন

বগুড়ার ধুনট উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ তারেক হেলালকে দল থেকে বহিষ্কারের গুঞ্জনে তার সমর্থক ও কর্মীরা শহরে দফায় দফায় লাঠি হাতে বিক্ষোভ মিছিল করছেন। রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠক থেকে এমএ তারেক হেলালকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত আসতে পারে এমন গুঞ্জনে বিক্ষোভ মিছিল করেন তারা।

এ ঘটনায় উত্তেজনার সৃষ্টি হলে সকাল থেকে ধুনট শহরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। বিক্ষোভকারীরা উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে সামনে সভাস্থলের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ধুনট পৌরসভার নির্বাচনের পর থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করে জেলা আওয়ামী লীগের কাছে স্থায়ী বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়। এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি টিআইএম নুরুন্নবী তারিক ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাই খোকনের বিপক্ষে অবস্থান নেন এমএ তারেক হেলাল। তিনি বিভিন্ন সভা-সমাবেশে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সমালোচনা করেন।

বিষয়টি সংগঠন পরিপন্থী হওয়ায় তারেক হেলালকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয় দল থেকে। গত ৪ সেপ্টেম্বর তিনি নোটিশের জবাব দেন। তবে এরই মধ্যে শোনা যায় এমএ তারেক হেলালকে দল থেকে বহিষ্কার করা হচ্ছে।

এদিকে রোববার বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে কার্যনির্বাহী কমিটির সভা আহ্বান করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। হেলালের নেতৃত্বে বিক্ষোভকারীরা সভাস্থলের দিকে বারবার যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। পরে বিক্ষোভকারীরা ধুনট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে অবস্থান নেন।

এ বিষয়ে এমএ তারেক হেলাল বলেন, সভা-সমাবেশে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকের বিরুদ্ধে কোনো বক্তব্য দেওয়া হয়নি। প্রকৃতপক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে আমি সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হওয়ায় আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু হচ্ছে। আমি যাতে সম্মেলনে প্রার্থী হতে না পারি, সেজন্য দল থেকে বহিষ্কারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

ধুনট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাই খোকন বলেন, দলীয় নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যাচার ও অপপ্রচার করছেন এমএ তারেক হেলাল। তিনি সংগঠন পরিপন্থী বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। এ কারণে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। আজ উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, এ ঘটনায় শহরে উত্তেজনা বিরাজ করলে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। তবে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। জাগোনিউজ২৪

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
নিউজটি পড়েছেন 759 জন

আর্কাইভস