সর্বশেষ:

ধুনটে একমাত্র ছেলেকে বাঁচাতে বিধবা মায়ের আকুতি »

ধুনটে একমাত্র ছেলেকে বাঁচাতে বিধবা মায়ের আকুতি

বগুড়ার ধুনটে শাহীন আলম (১৩) নামের এক শিশুর হৃৎপিণ্ডে ছিদ্র দেখা দিয়েছে। এতে তিলে তিলে নিভে যাচ্ছে তার জীবনপ্রদীপ। জীবন-মৃত্যুর এক অনিশ্চয়তা কেড়ে নিয়েছে তার শৈশবের দুরন্তপনা। যে বয়সে তার পড়ালেখা ও খেলাধুলায় ব্যস্ত থাকার কথা, সেই সময় তার কাটছে মৃত্যুর প্রহর গুনে।

প্রায় এক বছর আগে শাহীনের হৃৎপিণ্ডে এ রোগ ধরা পড়ে। চিকিৎসক বলেছেন, দ্রুত অস্ত্রোপচার করতে না পারলে অকালে ঝরে যাবে শিশুটির জীবন। তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন তিন লাখ টাকা।

শাহীনের বাবা মুনসুর আলী মারা গেছেন প্রায় ১০ বছর আগে। সহায়–সম্বল বলতে কিছুই নেই পরিবারটির। প্রশাসনের সহায়তায় মাথা গোঁজার ঠাঁই পেয়েছে বগুড়ার ধুনট সদরের কলেজপাড়ায়, প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে। শাহীনের বিধবা মা আমিনা খাতুন সেখানে থেকে অন্যের বাড়িতে কাজ করেন। ছেলের চিকিৎসার খরচ জোগানো তাঁর পক্ষে দুঃসাধ্য। বিনা চিকিৎসায় সন্তানের নিশ্চিত মৃত্যু জেনে শুধুই চোখের জল ফেলছেন। এ পরিস্থিতিতে সমাজের বিত্তবান ও হৃদয়বান মানুষের কাছে সহায়তার আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

চিকিৎসক বলেছেন, দ্রুত অস্ত্রোপচার করতে না পারলে অকালে ঝরে যাবে শিশুটির জীবন। তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন তিন লাখ টাকা।

শাহীন ধুনট জাহিদুল ইসলাম জুয়েল মাদ্রাসায় অষ্টম শ্রেণিতে লেখাপড়ার পাশাপাশি জীবিকার তাগিদে স্থানীয় একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে দৈনিক মজুরিতে কাজ নিয়েছিল। এখন অসুস্থতার কারণে তা বন্ধ হয়ে গেছে।

আমিনা খাতুন বলেন, তাঁদের আয়ের আর কোনো পথ নেই। পরের বাড়িতে কাজ করতে না পারলে মা ও ছেলেকে অনাহারে থাকতে হয়। তিনি চোখের জল ফেলে বলেন, ‘ছেলের চিকিৎসা করার টাকা পামু কনে? স্বামীর কোনো ভিটা-বাড়িও নাই যে বেইচা চিকিৎসা করামু। তাই অন্যের সহযোগিতা ছাড়া একমাত্র ছেলেকে বাঁচানো সম্ভব না।’ প্রথম আলো

শাহীনের চিকিৎসায় সাহায্য পাঠাতে পারেন
বিকাশ নম্বর ০১৭৫৩২৬৯৪৫৬

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
নিউজটি পড়েছেন 461 জন

আর্কাইভস